একসঙ্গে দুই স্ত্রীকে রাখছেন ক্রিকেটার আরাফাত সানি

জাতীয় ক্রিকেট দলের ঘূর্ণি বোলার আরাফাত সানি এই বছরের শুরু থেকে নাসরিনকে নিয়ে ঘূর্ণি পাকে রয়েছেন। দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে সমঝোতা করে দুই স্ত্রীকেই রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সানি। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের করা মামলায় সোমবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে এই মর্মে একটি আপোষনামা দাখিল করে উভয়পক্ষ। এরপর বিচারক ওই মামলায় আরাফাত সানির জামিন স্থায়ী করেন।আপোষনামায় বলা হয়, ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর চার লাখ টাকা দেনমোহর ধার্যে আমরা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হই। যা এখন বেড়ে ১০ লাখ টাকা হবে এবং অদ্যসোমবার পুনরায় বিবাহ রেজিস্ট্রি করে নিব। এছাড়া আমাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝিতে সৃষ্ট মামলা প্রত্যাহারকরে নিব এবং এখন থেকে একসঙ্গে সুখে-শান্তিতে দাম্পত্য জীবন অতিবাহিত করবো।নাসরিন তথ্য প্রযুক্তি আইনে একটি মামলা করার পর গত ২২ জানুয়ারি সানিকেগ্রেপ্তার করে পুলিশ। নিজেকে সানির স্ত্রী দাবি করে এরপর যৌতুক নিরোধ আইন এবং নারী নির্যাতন আইনে আরো দুটিমামলা করেন নাসরিন। এসব মামলায় পরে নাসরিনের জিম্মায়ই এই ক্রিকেটারকে জামিন দেয় আদালত। এই মামলার ফাঁকেই ৩০ বছর বয়সী সানির আগের আরেকটি বিয়েরকথাও বেরিয়ে আসে। আগের দফায় জামিনের মেয়াদ শেষে বুধবার সানি আদালতে হাজির হয়ে স্থায়ী জামিন চাইলে বিচারক সমঝোতার জন্য আবারো তাগিদ দেন।সানির পক্ষে শুনানি করেন কাজী নজিবুল্লাহ হিরু, এম জুয়েল আহম্মদ ও মুরাদুজ্জামান মুরাদ। তারা আদালতকেবলেন, নাসরিনকে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে রাখতে চান সানি, এজন্য তাকে আলাদা ফ্ল্যাট ভাড়া করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু তিনি সেখানে থাকছেন না। তিনি সানির প্রথম স্ত্রীকে তালাক দিতে বলছেন। কিন্তু এটা সম্ভব না।‘আরাফাত সানির প্রথম স্ত্রীর কথা জেনেই তাকে বিয়ে করেছেন নাসরিন। এখন সানির প্রথম স্ত্রীকে তালাক দিলে তিনিও মামলা করবেন। সানি এখন দুই স্ত্রীকেই রাখতে চাচ্ছেন,’ বলেন আইনজীবী জুয়েল।তবে নাসরিন আদালতে বলেন, সানি যে আগে বিয়ে করেছিলেন, তা তিনি জানতেন না। তার সঙ্গে যখন আমি দেশের বাইরে ঘুরতেযাই, তখন তার পাসপোর্টে অবিবাহিত লেখা ছিল। সে আমাকে ধোঁকা দিয়েছে। সানির জামিন নামঞ্জুরের জন্য আদালতের কাছে আবেদনও করেন। তার পক্ষে আইনজীবী আতিকুর রহমানও জামিনের বিরোধিতা করেন।২৩ বছর বয়সী নাসরিন বিচারককে বলেন, আরাফাত সানি জামিন পাওয়ার পর থেকে তার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন না। ফোন দিলেও ধরেন না।একদিন তার বাসায় গেলে তার মা নার্গিসআক্তার আমাকে মারধর করেন। সানি আমার কাছ থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। একটি দিনও আমাকে সঙ্গ দিচ্ছেন না। এই মামলায় গত ৯ মার্চ একই বিচারক সানিকে১০ এপ্রিল পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করেন। এরপর ১৫ মে এবং তারপর ৭ জুন পর্যন্ত জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়।একসঙ্গে দুই স্ত্রীকে রাখছেন ক্রিকেটার আরাফাত সানি

126 total views, 1 views today

mm
About Rubel 3257 Articles
আমার Youtube Channel (Movie Bangla) আশা করি সবাই ভিজিট করুন।

Be the first to comment

Leave a Reply