ছেলে মেয়েদের যৌন অক্ষমতার সমস্যা এবং তার সহজ মেডিকেল সমাধান

off-lineবাংলাদেশ একটি কনসারভেটিভ দেশ,তবে বর্তমানে এদেশের সেক্স কালচারঅনেক ফাস্ট, অনেক কম বয়স থেকেইছেলে মেয়েরা সব কিছু জানে,বুঝে এবং করে ( বিশেষ করে শহরে )।, কিন্তুসেক্সের এট্রাকটিভ দিক গুলোতেই সবার সাভাবিকভাবেই আকর্ষন বেশি এবং এসব সমন্ধে জানারআগ্রহ থাকে, বেশি। তবে সেকসু্যাল সমস্যারবেপারে রয়ে গেছে ভয়ানক অগ্যতা,এবং যা জানা থাকে তার বেশিরভাগি ভুল তথ্য। আমি এইপোস্টে এইডস এরবেপারে কোনো আলোচনা করবো না কারনবিদেশি ফান্ডের সুবাদে এই সমন্ধে যথেষ্ঠপ্রচারনা হয়। কিন্তু এইডস হচ্ছে একটি রেয়ারপ্রবলেম, এর থেকে কমন কমনসমস্যা সমন্ধে বেশিরভাগ মানুষের কোনআইডিয়া নাই, যেসব সমস্যা ঘরের কাছের সমস্যা।আর কমন সমমস্যার নিয়ে অনেক আরটিকেলপেপার মেগাজিনে পরলেও এর সঠিক মেডিকালসমাধান খুব কমি পরসি। তাই আমি চেষ্টা করবো কমনলেংগুয়েজে শুধু মাত্র মোস্ট কমন কারোনগুলো উল্যেখ করার এবং সহজ সমাধানগুলো তুলে ধরার চেস্টা করলাম। ছেলেদেরকমন সেকসুয়াল সমস্যা এবং তার সমাধান।মেইল ইমপোটেন্সbr /> ছেলেরা যেই বেপারে সবচাইতে বেশি চিন্তিতথাকে সেটা হচ্ছে ইরেকশন প্রবলেম। যদিওএই সমস্যা মধ্যবয়সিদের মাঝে বেশি দেখা দেয়,কিন্তু অনেকগুলো কারোনের জন্য দেশেরযুবক শ্রেনিদের মাঝেও এখন এইসমস্যা টা একটি বরো সমস্যা।ধুমপান: ইউথ ইমপোটেন্স বা যুবকদের যৈনঅক্ষমতার প্রধান কারন গুলোরমধ্যে একটি হচ্ছে ধুমপান, বাংলাদেশেরমোটামুটি সবাই ধুমপান করে যা নাকি ওয়ার্ল্ডের ওয়ানঅফ দা হাইয়েস্ট। দেশে অনেকআজিরা কথা প্রচলিত আছে যেমন গোল্ড লিফখেলে সেক্স পাওয়ার কমে যায়, আর বেনসনখেলে তেমন একটা খতি হয় না। ইটস আ বুলশিট।নিকোটিন সব সিগারেটেই আছে কম বেশি আরসিগারেটের অন্যান্য খতিকারক কেমিকালগুলো সবসিগারেটেই সমপর্যায়ে থাকে। যেসবেরকারনে পেনিসের রক্তনালি সংকচিত হতে থাকে।স্ট্রেস: এটি পশ্চমা দেশগুলোতে ইমপোটেন্সের প্রধানসমস্যা তবে দেশেও এটি একটি উল্যেখযোগ্যকারন। বিভিন্য কারনে যদি মাথায় বিভিন্য ধরনেরটেনশন থাকে তাহলে ব্রেইন সেক্সেরদিকে যথেষ্ঠ এটেনশন দিতে পারেন না। আপনারযদি সেক্স করার সময় ( এনাফ ) ইরেকশননা হয়ে থাকে, কিন্তু মর্নিং ইরেকশন ঠিকথাকে তাহলে মনে করবেন আপনার ফিসিকালপাওয়ার ঠিকি আছে কিন্তু স্ট্রেস বা অন্য কোনমানসিক সমস্যার কারনে মেন্টাল কনসেনট্রেশনটা নেই। ড্রাগস: ড্বাগসের মধ্যে বিশেষকরে হেরোইন এর জন্য ইমপোটেন্সহতে পারে। কোকেইন সেবনে প্রথমদিকে সাময়িক ইরেকশন হলেও পরে সেটা আরহয় না এবং উল্টো খতি করে।ওভার এক্সপেকটেশন: এটি আসলে কোনসমস্যা না। এটি ভুল বুঝা বা জানার জন্য হয়। সেক্সকালচার বেশি অপেন হওয়াতে পর্নদেখে বা মৈখিক মিথ্যরচনার কারনে দেশ বিদেশসব খানেই সেক্স পাওয়ার সমন্ধে ৯০ ভাগ মানুশেরএকটি ভুল ইমেজ তৈরি হয়েছে। এইবেপারে দেখা যায় যে মানুশ মনে করে তারহয়তো সেক্স পাওয়ার কম, কিন্তু ডাক্তারেরকাছে গেলে কোনকিছু ধরা পরে না ( যদিওদেশের ডাক্তাররা অযথা অনেক টেস্ট করাবে)।,ডাক্তার জিগ্যেশ করার পর দেখা যায় তার সেক্সয়ালএকটিভিটি নর্মালি আছে, কিন্তু পেশেন্টসেটা নিয়ে সন্তুষ্ট নয়। মানুসমনে করে যে ডেইলি এবং লং এনাফ সেক্সকরতে না পারাটাই অক্ষমতার লক্ষন। আবারঅনেকে তার পেনিসের লেনথ নিয়ে খুশি নয়।এসব হচ্ছে অযথা টেনশন, পর্নমুভিতে যা দেখানো হয় সেটা নর্মাল সেকসুয়ালএকটিভিটি নয়। আপনার বউ ( সেক্সুয়াল পার্টনার)কে জিগ্গেশ করুন যে সে সেটিসফাইড নাকি,তাহলেই কিস্সা খতম। এক্সেসিভ পর্ন দেখারবদৈলতে আবার নিজের বউ বা সেকসুয়ালপার্টনারের প্রতি এট্রাকশন কমে যায় অনেকের।জেনে রাখা ভালো, এভারেজ সেক্সয়ালফ্রিকয়েন্স হলো সপ্তাহে ৩ বার।ডিইরেশন ১৫ মিন। পেনিস লেনথ রেসঅনুযায়ি ভেরি করে। ইউরোপ এমেরিকা: ১৪,৫সে. মি. চায়না/ জাপান: ১২ সে.মি. সাবকন্টিনেন্ট( ইন্ডিয়া/ বাংলাদেশ): ১৩ সে.মি. থেরাপিbr /> সবচে এফেকটিভ থেরাপি হচ্ছে চেন্জ অফলাইফ স্টাইল-ধুমপান বন্ধ করুন। বেপারটি খুবি কঠিন, এইবেপারেও আপনি সঠিক মেডিকাল গাইডপেতে পারেন আপনার ডাক্তারের কাছ থেকে।-যথেষ্ঠ বেয়াম করুন। ফিসিকাল মুগমেন্টভায়াগরা বা অন্যান্য অষুধ থেকে অনেকবেশি এফেকটিভ, বিশেষ করে ইয়াং দের জন্য। -সেক্স বেপারটাকে স্পোর্টসের মতনদেখবেন না যে এটা তে আপনাকে ফার্সটপ্রাইজ আনতেই হবে। বাট হালকা / রিলেক্সভাবে নেন দেখবেন ফার্সট প্রাইজথেকা বেশি এনজয় পাচ্ছেন।-ভায়াগ্রা থেরাপি ডাক্তারের পরামর্শ ছারা শুরু করবেননা। এতে সাময়িক উপকারিতা পেলেও লং টার্মেরজন্য এফেকটিভ থেরাপি নয়। -আল্টারনেটিভ( ফুটপাথের সপ্নে পাওয়া ) ওৈষধ থেকে ১০০মাইল দুরে থাকুন )মেয়েদের কমন যৈন অক্ষমতার সমস্যাbr /> মেয়েদের যৈন অক্ষমতারবেপারে রয়েছে আরো বেশি নলেজেরঅভাব। এটা যে হয় সেটাই ৯০ ভাগ মানুশজানে কিনা সন্দেহ আছে,এমনকি স্বয়ং মেয়েরাও জানে না অনেক সময়।দেশে আমি এই পর্যন্ত কোথাও এইবেপারে কোনো আরটিকেল দেখি নাই।ভাজাইনাল ড্রাইনেস এবং পেইনফুল ইন্টারকোর্সbr /> মেয়েদের বেলায় সেক্সুয়াল এরাউসালের ( যৈনউত্যেজনার ) সময় লুব্রিকেশন (যোনিরস) হয় যারফলে ভাজায়না ভিজে যায় এবং সেক্সকরতে ( পেনিস ঢুকতে ) সুবিধা হয়।লুব্রিকেশনের বেশির ভাগ ফ্লুইড (রস) ভাজাইনারদেয়াল থেকে নির্গত হয় তবে ছোটএকটি গ্লেন্ড ( থলি )থেকেও কিছু বর হয়।অনেক মেয়েদের সমস্যা দেখা দেয়যে লুব্রিকেশন হয়না বা সময়মত হয়না, যারফলে সেক্স এনজয়ের বদলে পেইনফুল হয়( পেইনফুল ইন্টারকোর্স)।,বেশিরভাগমেয়েরা সেটা তার হাসবেন্ড কে জানায়না নিজের অক্ষমতা মনে করে। কিনতুএখানে খোলামেলা কথা না বললে সমস্যার সমাধানসম্ভব নয়। ভাজাইনাল ড্রাইনেসেরসবচে বরো কারনটা আসলে ছেলেদেরইদোষ। ইন্টারকোর্স ( ভাজিনাতে পেনিসপ্রবেশে) এর পুর্বে যথেষ্ঠ স্টিমুলেশন ( যৈনউত্যেজনা ) না থাকলে লুব্রিকেশন সময় মতন হয়না। ইন্টারকোর্সের আগে যথেষ্ঠ সময় আরএটেনশন নিয়ে সেক্সয়াল স্টিমুলশন ( কিসিং, সাকিং )করলেই বেশিরভাগ বেলায় এর সমাধান সম্ভব।ছেলেদের যেমনপেনিসে রক্তনালিতে ফেট ( চর্বি ) জমারকারনে ইমপোটেন্সি হয় তেমনি মেয়েদেরবেলাতেও তেমনি ভাজাইনাল ব্লাড ভেসেলের( রক্তনালিতে ) চর্বি জমলে এইসমস্যা হতে পারে। তাই ব্লাড ভেসেলেরচর্বি কমানোর চেস্টা করতে হবে। ফেট কমখাওয়া, বেয়াম করা, সিগারেট না খাওয়া হল এর উপায়।আর্টফিসিয়াল লুব্রিকেশন: এরপরেয় যদি এনাফলুব্রিকশন না হয় এবং সেক্স পেইনফুল হয়তাহলে আর্টিসিয়াল লুব্রিকেশন ( নকল যোনিরস)ইউজ করা যায়। দেশের মেয়েরা সাধারনততেলবা ভেসলিন ইউজ করে থাকে কিন্তুএতে সমস্যা হচছে যে বেশি ইউজকরলে ভাজাইনার নরমাল বেকটেরিয়ালফ্লোরা ( শরিরের জন্য উপকারি বেকটেরিয়া )নষ্ট হয় এবং তাতে ঘন ঘন ভাজাইনাল ইনফেকশনহতে পারে। এর জন্য স্শেপয়াল আর্টিফিসিয়াললুব্রিকেশন পাওয়া যায় যা নাকি ঘন পানির মতন হয়।( বাংলাদেশে আছে কিনা জানিনা )।, যদি তেলবা ভেসেলিন ইউজ করা হয়তাহলে সেটা সেক্সেরপরে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

20 total views, 2 views today

mm
About bipul 5644 Articles

Love is Life

Be the first to comment

Leave a Reply