Priyo24.Com

Place of somethings Knowing

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ২০১৭-১৮ বিস্তারিত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি যুদ্ধ ২০১৭-১৮
==================================
.
আবেদনের সময়সীমা: ৮ আগস্ট (দুপুর ১২ টা) থেকে ৩১ আগষ্ট (রাত ১২ টা) পর্যন্ত।
.
আবেদন ফি:
→ A, B, C ও D ইউনিটের জন্য ৫০৫ টাকা।
→E ইউনিটের জন্য ৬০৬ টাকা।
.
→আবেদনের যোগ্যতা:
→ A ইউনিটে বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-দ্বয়ের যোগফল কমপক্ষে ৮.৫০ (৪র্থ বিষয় সহ) এবং প্রতিটিতে আলাদা আলাদা ৩.৫০ থাকতে হবে।
. বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
** B ইউনিটে মানবিক শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-দ্বয়ের যোগফল কমপক্ষে ৮.০০ (৪র্থ বিষয় সহ) এবং প্রতিটিতে আলাদা আলাদা ৩.৫০ থাকতে হবে।
.
** C ইউনিটে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা শিক্ষার্থীদের মোট জিপিএ ৮.৫০ হতে হবে।
.
** D ইউনিটে আবেদনের জন্য বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষার শিক্ষার্থীদের উপরে উল্লেখিত যোগ্যতা থাকতে হবে
বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
এবং বাংলা ও ইংরেজীতে ৩.৫০ এর নিচে নয়।
.
** E ইউনিটে যেকোন শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-দ্বয়ের যোগফল কমপক্ষে ৭.০০ (৪র্থ বিষয় সহ) এবং প্রতিটিতে আলাদা আলাদা ৩.০০ থাকতে হবে।
.
** আবেদন করার ক্ষেত্রে প্রার্থীকে দেশের যেকোন শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাশের সন ২০১৪/২০১৫ এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাশের সন ২০১৭ হতে হবে। অর্থাৎ দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ নেই।
.
আবেদনের নিয়মাবলীঃ
► ভর্তি পরীক্ষার আবেদনের জন্য জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি ওয়েবসাইট (http://admission.jnu.ac.bd/ )-তে গিয়ে লগইন করতে হবে। আবেদনের জন্য যোগ্য কিনা তা জানার জন্য ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত ওয়েব পেইজে নির্ধারিত তথ্য (এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর, পাশের সন, বোর্ড) দিয়ে সাবমিট করতে হবে। সাবমিট করার পর আবেদন যোগ্য বলে বিবেচিত হলে একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে সাবমিট বাটনে ক্লিক করলে Payment ID Number দেখতে পাওয়া যাবে। যেমনঃ Payment ID Number XXXXX।
.
► আবেদন টাকা প্রদানের পদ্ধতিঃ
ভর্তি আবেদন টাকা bKash, SureCash এবং DBBL মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে জমা দেওয়া যাবে। ভর্তি ফি জমা দেওয়ার পদ্ধতি ছবিতে দেখে নিন।
.
► আবেদনের টাকা জমাদানের পর জবি ভর্তি ওয়েবসাইটে (http://admission.jnu.ac.bd/ ) লগইন করতে হবে। লগইন করার পর অগ্রাধিকারের
বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
ভিত্তিতে পছন্দের বিষয় নির্বাচন করতে হবে।
.
► অতঃপর আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজের (৩০০x৩০০ পিক্সেল সর্বোচ্চ ৮০kb) এবং স্বাক্ষর (৩০০x৮০ পিক্সেল) আপলোড করতে হবে।
.
► কোটায় ভর্তিচ্ছুদের নির্ধারিত কোটা উল্লেখ করতে হবে-
** মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কোটা (FFQ)
** মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনি কোটা (FFG)
** পোষ্য (ওয়ার্ড) কোটা (WQ)
** উপজাতী কোটা (TQ)
** শারীরিক প্রতিবন্ধী কোটা (PDQ)
** খেলোয়াড় কোটা (BKSP)
.
► পূরণকৃত তথ্য ভালোভাবে চেক করতে হবে। মনে রাখতে হবে Final Submit বাটনে ক্লিক করার পর পূরণকৃত তথ্য পরিবর্তন করা যাবে না। তাই Final Submit বাটনে ক্লিক করার আগে সকল
বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
তথ্য অত্যন্ত সতর্কতার সাথে চেক করতে হবে।
.
এডমিট কার্ড ডাউনলোডের সময়সীমা: পরবর্তী যেকোনো পোস্টে জানিয়ে দেয়া হবে।
.
দ্রষ্টব্যঃ প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে ২ কপি (১ কপি শিক্ষার্থীর এবং অন্যকপি ভর্তি পরীক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে নিবে) রঙ্গিন এডমিট কার্ড প্রিন্ট করতে হবে। এছাড়াও শিক্ষার্থীর কপি সযত্নে সংরক্ষণ করতে হবে কারণ, পরবর্তীতে ভর্তির সময় এডমিট কার্ড ছাড়া কোন শিক্ষার্থীকে ভর্তি করানো হবে।
.
ভর্তি পরীক্ষার রুটিন: ঢাবি’র অনুরূপ
(প্রতি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বিকাল ৩ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।)
.
ভর্তি পরীক্ষার মানবণ্টনঃ
❑ A ইউনিটঃ
* পদার্থ ১৮ (পাশ ৬)
* রসায়ন ১৮ (পাশ ৬)
বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
* জীববিজ্ঞান/বাংলা/ইংরেজী ১৮ (পাশ ৬)
* গণিত/বাংলা/ইংরেজী ১৮ (পাশ ৬)
.
দ্রষ্টব্যঃ
✪ উচ্চমাধ্যমিকে যাদের পদার্থ, রসায়, জীববিজ্ঞান ও গণিত বিষয়গুলো ছিল, তাদেরকে প্রত্যেকটি বিষয় উত্তর করতে হবে।
.
✪ উচ্চমাধ্যমিকে যাদের গণিত ছিলনা, তারা গণিতের পরিবর্তে বাংলা/ইংরেজী উত্তর করতে পারবে।
.
✪ উচ্চমাধ্যমিকে যাদের জীববিজ্ঞান ছিলনা, তারা জীববিজ্ঞানের পরিবর্তে বাংলা/ইংরেজী উত্তর করতে পারবে।
.
✪ যাদের উচ্চমাধ্যমিকে গণিত/
জীববিজ্ঞান কোনটি-ই ছিলনা, তারা গণিত এবং জীববিজ্ঞানের পরিবর্তে বাংলা এবং ইংরেজী অংশের উত্তর করতে পারবে।
.
✪ প্রতিটি বিষয়ে আলাদা আলাদা ৬ নম্বর সহ মোট ৩০ নম্বর পেতে হবে।
.
❑ B ইউনিটঃ
* বাংলা ২৪
* ইংরেজী ২৪
* সাধারন জ্ঞান ২৪
.
✪ প্রতিটি বিষয়ে আলাদা আলাদা ৮ নম্বর সহ মোট ৩০ নম্বর পেতে হবে। তবে ইংরেজী বিভাগে ভর্তির জন্য ইংরেজী বিষয়ে ন্যূনতম ১৪ নম্বর পেতে হবে।
.
❑ C ইউনিটঃ
► বাণিজ্য বিভাগের জন্য-
* ইংরেজী ২৪
* গাণিতিক বুদ্ধিমত্তা ২৪
বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
* হিসাব বিজ্ঞান ও ব্যবসায় পরিচিতি ২৪
.
► অন্যান্য বিভাগের জন্য-
* বাংলা ২৪
* ইংরেজী ২৪
* গাণিতিক বুদ্ধিমত্তা ২৪
.
✪ প্রতিটি বিষয়ে আলাদা আলাদা ৮ নম্বর সহ মোট ৩০ নম্বর পেতে হবে।
.
❑ D ইউনিটঃ
* বাংলা ২৪
* ইংরেজী ২৪
* সাধারন জ্ঞান ২৪
.
✪ ইংরেজী বিষয়ে ১২ এবং বাংলা ও সাধারন জ্ঞান বিষয়ে আলাদা আলাদা ৮ নম্বর সহ মোট ৩০ নম্বর পেতে হবে।
.
❑ E ইউনিটঃ
* বাংলা ২৪
* ইংরেজী ২৪
* সাধারন জ্ঞান (শিল্প ও সংস্কৃতি সম্বন্ধীয়) ২৪
.
দ্রষ্টব্যঃ
লিখিত MCQ পরীক্ষায় প্রতিটি বিষয়ে আলাদা আলাদা ৮ নম্বর সহ মোট ৩০ নম্বর পেতে হবে। কৃতকার্য শিক্ষার্থীদের মধ্যে হতে একটি তালিকা তৈরি করা হবে। তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীদের থেকে ৫০ নম্বরের একটি “Performance Test” নেওয়া হবে। “Performance Test”-এ ন্যূনতম ১৬ পেতে হবে এবং সেই আলোকে চূড়ান্ত মেধাতালিকা তৈরি করা হবে।
.
আসন সংখ্যাঃ
❑ A ইউনিট (বিজ্ঞান):
* পদার্থ- ৮০
* রসায়ন- ৮০
* গণিত- ৮০
* পরিসংখ্যান- ৮০
* প্রাণিবিদ্যা- ৮০
* উদ্ভিদ বিজ্ঞান- ৮০
* ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান- (বিজ্ঞান ৬০+ অন্যান্য ২০)
* মনোবিজ্ঞান- (বিজ্ঞান ৬০+ অন্যান্য ২০)
* কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং- ৫০
* মাইক্রোবায়োলজি- ৪০
বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
* ফার্মেসী- ৩০
* বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি- ৩০
* জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি- ৩০
.
❑ B ইউনিট (মানবিক):
* বাংলা- ৬০+১২+৮
* ইংরেজী- ৩৫+৩০+১৫
* ইতিহাস- ৬০+১২+৮
* ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি- ৬০+১২+৮
* ইসলামিক স্টাডিজ- ৬৭+১০+৩
* দর্শন- ৬২+১০+৮
* আইন- ২৫+৩০+২৫
* ভূমি ও আইন ব্যবস্থাপনা- ২০+২০+২০
* শিক্ষা ও গবেষণা- ২৫+২৫+১০
.
❑ C ইউনিট (বাণিজ্য):
* একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস- ১৪০+২০
* ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ- ১৪০+২০
* মার্কেটিং- ১০৫+১৫
* ফিন্যান্স- ১০৫+১৫
.
❑ D ইউনিট (মানবিক+বিজ্ঞান
+বাণিজ্য):
* অর্থনীতি- ৩৫+৩০+১৫
* রাষ্ট্রবিজ্ঞান- ৪০+৩০+১০
* সমাজবিজ্ঞান- ৬০+১২+৮
* সমাজকর্ম- ৬০+১২+৮
* নৃবিজ্ঞান- ৫০+২০+১০
* গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা- ৫৫+১৫+১০
* লোকপ্রশাসন- ৫৫+১৫+১০
* ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন স্টাডিজ- ৪০+২০+২০
.
❑ E ইউনিট:
* সংগীত- ৪০
* চারুকলা- ৪০
* নাট্যকলা- ৪০
.
(মোট আসন ১২০)
.
অন্যান্য তথ্যঃ
প্রতি ইউনিটে (E ইউনিট ব্যতীত) ৭২ নম্বরের MCQ পরীক্ষা এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-দ্বয়ের উপর ২৮ নম্বরের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে।
.
এসএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-কে ২.৪ দ্বারা এবং এএচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-কে ৩.২ দ্বারা গুণ করা হবে।
.
E ইউনিট ভর্তি পরীক্ষায় (৭২+২৮)=১০০ এবং ৫০ নম্বরের ব্যবহারিক পরীক্ষার (মোট ১৫০ নম্বর) ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে।
.
ভর্তি পরীক্ষায় প্রতিটি MCQ প্রশ্নের জন্য ১ নম্বর করে বরাদ্দ থাকবে। এবং প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য (.২৫) নম্বর কর্তন করা হবে।
. বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য ও সহযোগিতা কেন্দ্র
ভর্তি পরীক্ষায় মোবাইল, ঘড়ি ও ক্যালকুলেটর সহ সবধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারের উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।
.
আপনি কোন কোন বিষয়ে ভর্তি হওয়ার যোগ্যতা রাখেন, তা জানতে জবি ভর্তি ওয়েবসাইট (http://admission.jnu.ac.bd/ ) তে গিয়ে পছন্দের ইউনিটের উপর ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য (এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর, পাশের সন, বোর্ড) প্রবেশ করিয়ে Submit বাটনে ক্লিক করুন।
.
আবেদন এর সময় কোন সমস্যা হলে এই নাম্বার (০১৭৭৮৬৭২৬০০) এ যোগাযোগ করুন।
.
ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত সবধরনের গুরুত্বপূর্ণ নোটিশ, সিট প্ল্যান ও অন্যান্য তথ্য জবি ওয়েবসাইট (http://jnu.ac.bd/ )-তে পাওয়া যাবে।
.
#শুভ
.
ম্যানশন | শেয়ার

183 total views, 1 views today

Leave a Reply

Priyo24.Com © 2018 Raihanul Haque