ফরয গোসলের ইসলামিক সঠিক নিয়ম ও শর্তসমূহ !!

ইসলামি ভাষায় ফরজ গোসল করার সঠিক নিয়ম ও ফরয গোসলের শর্তসমূহ !!ফরজ গোসলের সঠিক নিয়ম না জানার কারণে অসংখ্য মুসলিম ভাই- বোনের সালাত সহ নানা আমল কবুল হয় না। যেটা ঈমানের ক্ষেত্রে চরম ভয়ানক ব্যাপার।যেসব কারণে গোসল ফরজ হয়ঃ১. স্বপ্নদোষ বা উত্তেজনাবশত বীর্যপাতহলে।২. নারী-পুরুষ মিলনে (সহবাসে বীর্যপাত হোক আর নাই হোক)।৩. মেয়েদের হায়েয-নিফাস শেষ হলে।৪. ইসলাম গ্রহন করলে(নব-মুসলিম হলে)।ফরজ গোসলের ফরজ সমূহ হলো-গোসলের ফরজ মোট তিনটি। এই তিনটির কোনো একটি বাদ পরলে ফরজ গোসল obligatory bath আদায় হবে না। তাই ফরজ গোসলের সময় এই তিনটি কাজ খুব সর্তকতার সাথে আদায় করা উচিত।১. গড়গড়া কুলি করা।২. নাকে পানি দেওয়া।৩. এরপর সারা দেহে পানি ঢালা ও ভালোভাবে গোসল করা।ফরজ গোসলের সঠিক নিয়মঃ১. গোসলের জন্য মনে মনে নিয়্যাত করতে হবে। বাড়তি মুখে কোন আরবি শব্দ উচ্চারণ করে নিয়্যাত করা বিদ’আত।২. প্রথমে দুই হাত কব্জি পর্যন্ত ৩ বার ধুতে হবে।৩. এরপর ডানহাতে পানি নিয়ে বামহাত দিয়েলজ্জাস্থান এবং তার আশপাশ ভালো করে ধুতে হবে। শরীরের অন্য কোন জায়গায় বীর্য বা নাপাকি লেগে থাকলে সেটাও ধুতে হবে।৪. এবার বামহাতকে ভালো করে ধুইয়ে পেলতেহবে।৫. এবার ওজুর নিয়মের মত করে ওজু করতে হবে তবে দুই পা ধুয়া যাবে না।৬. ওজু শেষে মাথায় তিনবার পানি ঢালতে হবে।৭. এবার সমস্ত শরীর ধোয়ার জন্য প্রথমে ৩ বার ডানে তারপরে ৩ বার বামে পানি ঢেলে ভালোভাবে ধুতে হবে, যেন শরীরের কোন অংশই বা কোন লোমও শুকনো না থাকে। নাভি, বগল ও অন্যান্য কুঁচকানো জায়গায় পানি দিয়ে ধুতে হবে।৮. সবার শেষে একটু অন্য জায়গায় সরে গিয়ে দুই পা ৩ বার ভালোভাবে ধুতে হবে।অবশ্যই মনে রাখতে হবেঃ১. পুরুষের দাড়ি ও মাথার চুল এবং মহিলাদের চুল ভালোভাবে ভিজতে হবে।২. এই নিয়মে গোসলের পর নতুন করে আর ওজুর দরকার নাই, যদি ওজু না ভাঙ্গে।(আল্লাহ আমাদের সঠিকভাবে কুর’আন ও সহিহসুন্নাহ মেনে চলার তাওফিক দিক এবং পূর্বের না জেনে করা ভুল ক্ষমা করুক। আমিন।)

193 total views, 1 views today

mm
About Rubel 3241 Articles
আমার Youtube Channel (Movie Bangla) আশা করি সবাই ভিজিট করুন।

Be the first to comment

Leave a Reply