সেলফোনে সিম কার্ড কেন প্রয়োজনীয়? সিম ছাড়া কি সেলফোন চালানো সম্ভব?

আজকের সেলফোন গুলো দিনের পরেদিন আরো উন্নতি লাভ করছে—কিন্তুএখনো পর্যন্ত সেলফোন গুলোনেটওয়ার্কের জন্য সিম কার্ডের উপরনির্ভরশীল। আপনার ফোনটি যতোইস্মার্ট হোক আর যতোই দামী হোক নাকেন, সিম কার্ড ছাড়া এর প্রায় অর্ধেকমূল্যই নেই। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে এইসিমকার্ড আসলে কি? কেন এটিএতোবেশি গুরুত্বপূর্ণ? সিম ছাড়া কিসেলফোন চালানো সম্ভব? চলুন এই প্রশ্নগুলোর উত্তর খোঁজার চেষ্টা করি।সিম কার্ড কি?সেলফোনের জগতে প্রধানত দুই ধরনেরমোবাইল বিশ্বব্যাপী গ্রাহকগনদেরজন্য ব্যবহারযোগ্য; জিএসএম (GSM)( গ্লোবাল সিস্টেম ফর মোবাইল) এবংসিডিএমএ (CDMA) ( কোড ডিভিশনমাল্টিপল অ্যাক্সেস)। জিএসএম ফোনগুলোতে শুধু সিমকার্ড ব্যবহার করারপ্রয়োজনীয়তা রয়েছে, যেখানেসিডিএমএ ফোনে সিমের প্রয়োজন নেই।সিম-কার্ড প্রধানত একটি ছোটআকারের কার্ড—যেখানে একটি ছোটচিপ লাগানো থাকে, এবং এটিপ্রত্যেকটি জিএসএম ফোন কাজ করারজন্য অবশ্যই প্রয়োজনীয় একটি জিনিষ।সিম-কার্ড ছাড়া জিএসএম ফোন গুলোকখনোই নেটওয়ার্ক টাপ করতে পারেনা। শুধু এটুকুতেই নয়, এই কার্ডের মধ্যেসকল গুরুত্বপূর্ণ তথ্য অবস্থান করে।সিডিএমএ অপারেটর তাদের সকল ফোনগুলোর একটি সম্পূর্ণ তালিকা রাখে—যাতে তারা সেই ফোন গুলোকে তাদেরনেটওয়ার্ক ব্যবহার করার অ্যাক্সেসপ্রদান করতে পারে। এই ফোন গুলোকেতাদের ইএসএন ( ইলেক্ট্রনিক সিরিয়ালনাম্বার ) ব্যবহার করে ট্র্যাক করা হয়,ফলে এই ফোনে কোন সিম-কার্ডেরপ্রয়োজন পড়ে না। ফোন সক্রিয় করারপরে সিডিএমএ ফোন সরাসরি এরমোবাইল নেটওয়ার্কের সাথে সম্পর্কস্থাপন করার চেষ্টা শুরু করে।অ্যামেরিকাতে প্রায় বেশিরভাগমোবাইল অপারেটর সিডিএমএ ভিত্তিকসেবা প্রদান করে থাকে। তবে কোনকোন মোবাইল অপারেটরএকসাথে সিডিএমএ এবং জিএসএম উভয়সেবা প্রদান করে থাকে।অ্যামেরিকাতে সিডিএমএ সেবাদেওয়া হলেও বিশ্বব্যাপীকিন্তু জিএসএম সবচাইতে বেশিজনপ্রিয়। এমনকি বাংলাদেশেরমোবাইল অপারেটরসিটিসেল প্রধানত জিএসএম সেবাপ্রদান না করার কারণে সম্পূর্ণ ধ্বংসহয়ে গেছে।সিম কার্ড কীভাবে কাজ করে?সিম কার্ডের মধ্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণডাটা থাকে, তার মদ্ধে প্রধান হলোআইএমএসআই (IMSI) ( ইন্টারন্যাশনালমোবাইল সাবস্ক্রাইবারআইডেনটিটি ) এবং একটিঅ্যথন্টিকেশন কী(যা আইএমএসআই যাচাই করে)।এই অ্যথন্টিকেশন কী টি আপনারমোবাইল অপারেটর প্রদান করে থাকে।এই সম্পূর্ণ সিস্টেমটি কীভাবে কাজকরে তা পরিষ্কার করে জানবার জন্যনিচের স্টেপ গুলো দেখুন;সেলফোনে সিম লাগিয়ে ফোন অনকরা মাত্র সেলফোন সিমথেকে আইএমএসআই গ্রহন করে এবংতা নেটওয়ার্কে ছড়িয়ে দেয়—এবংঅ্যাক্সেস পাওয়ার জন্যনেটওয়ার্কের কাছে অনুরোধ পাঠায়।নেটওয়ার্ক সেই আইএমএসআই কেগ্রহন করে এবং অ্যথন্টিকেশন কীপ্রদান করার জন্য অভ্যন্তরীণডাটাবেজ চেক করে।এবার নেটওয়ার্ক একটি এলোমেলোনাম্বার উত্পাদন করে, মনেকরুনসেটি “ক”, এবং এইনাম্বারটিকে অ্যথন্টিকেশন কী এরসাথে সাইন করে আরেকটি নতুননাম্বার উত্পাদন করে, মনেকরুনসেটি “খ”। এবার নেটওয়ার্কনাম্বারটিকে পাঠিয়ে দেয় আপনারসিমের বৈধতা যাচায় করার জন্য।আপনার সেলফোন নেটওয়ার্ক থেকেসেই নাম্বারটি গ্রহন করে এবংসিমের কাছে পৌছিয়ে দেয়। এইনাম্বারটির সাথে অ্যথন্টিকেশন কীযুক্ত করা থাকে এবং এটি সিমেপৌঁছে আরেকটি নতুন নাম্বার “গ”উৎপন্ন করে—এবং এটিকে আবারনেটওয়ার্কের কাছে পৌছিয়ে দেয়।এখন যদি নেটওয়ার্ক নাম্বার “ক”সিম কার্ড থেকে আসা নাম্বার “গ”এর সাথে মিলে যায় তবে নেটওয়ার্কআপনার সিমকে বৈধ হিসেবেস্বীকৃতি প্রদান করবে এবং সিমটিরঅ্যাক্সেস গ্র্যান্টেড হবে।আর এই কারনেই সিম ব্যবহার করা এতোসুবিধা জনক, যখন আপনি এটিকে কোননতুন ফোনে প্রবেশ করাবেন। সিমেরমধ্যে নেটওয়ার্কের সাথে লগইনকরার পরিচয়পত্র আগে থেকেই দেওয়াথাকে। ফলে যেকোনো ফোনই খুব দ্রুতনেটওয়ার্কের সাথে কানেক্টেড হয়েযেতে পারে। অন্যদিকে সিডিএমএপদ্ধতিতে নতুন ফোন পাল্টানো অনেকমুশকিলের কাজ, কেনোনা এতে সরাসরিফোনটিই নেটওয়ার্কের সাথে নিবন্ধিতথাকে।প্রত্যেকটি সিমে একটিঅদ্বিতীয় আইডেন্টিফায়ার থাকে,যাকে আইসিসিআইডি (ICCID)( ইন্টাগ্রেটেড সার্কিটকার্ড আইডেন্টিফায়ার ) বলা হয়।এই আইডেন্টিফায়ারটি কার্ডেসংরক্ষিত রাখা হয়। আইসিসিআইডি৩টি নাম্বার ধারণ করে—একটি আইডেন্টিফাইং নাম্বার সিমকার্ড ইস্যুকারীর জন্য,আরেকটি আইডেন্টিফাইং নাম্বারথাকে অ্যাকাউন্ট তথ্যের জন্য এবংতৃতীয় নাম্বারটি প্রথম এবং দ্বিতীয়নাম্বারের এক্সট্রা সিকিউরিটিদেওয়ার জন্য কাজ করে।এছাড়াও সিম কার্ড আরো অন্য ধরনেরডাটা সংরক্ষিত রাখার ক্ষমতা রাখে;যেমন- কন্টাক্ট লিস্ট ডাটা এবংএসএমএস ম্যাসেজ। বেশিরভাগ সিমে৩২-১২৮ কিলোবাইট ডাটা সংরক্ষিতরাখার মতো জায়গা থাকে। সিমে এইডাটা সংরক্ষন করার জায়গা থাকারউদ্দেশ্য হলো, আপনি সিমটি এক ফোনথেকে আরেক ফোনে স্থানান্তর করলেযাতে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য গুলোর ব্যাকআপথাকে। তবে এখনকার স্মার্টফোনগুলোতে আরো অনেক আধুনিক ব্যাকআপসিস্টেম থাকে। তাছাড়া আজকেরদিনের ফোন গুলোতে ফোনের ইন্টারনালমেমোরিতেই সকল কন্টাক্ট লিস্ট ডাটাএবং এসএমএস ম্যাসেজ জমা করেরাখে। ফলে সিম কার্ড শুধু নেটওয়ার্কঅ্যাক্সেস পাওয়ার জন্যই ব্যবহৃত হয়।লক সিম কি?আসলে সিম কখনো লক থাকে না,জিএসএম ফোন গুলো লক করা থাকে।জিএসএম ফোনে এমন একধরনেরসফটওয়্যার ইন্সটল করা থাকে যাতেফোনটি শুধু মাত্র নির্দিষ্ট কোননেটওয়ার্ক কেই অ্যাক্সেস করতেপারে। যদি নির্দিষ্ট সিম ফোনেপ্রবেশ করানো না হয়, তবে ফোনটিকাজ করতে পারে না। আর এটি তখনইঘটে যখন আপনার ফোন লক করা থাকে।ফোন আনলক করার অর্থ হলো, ফোনটিতেনির্দিষ্ট সিম ব্যবহারের লিমিটকেমুছে ফেলা, যাতে ফোনটি অন্যান্যনেটওয়ার্ক সমর্থন করতে পারে। অনেকসময় ফোনের দাম কমানোর জন্য এবংনির্দিষ্ট অপারেটরের সাথে ফোনকোম্পানির চুক্তি থাকার জন্য ফোন লককরে বাজারজাত করা হয়। অনেক সময়বিদেশ থেকে কেউ নতুন উপহারের ফোননিয়ে এসে দেশে ব্যবহার করতে পারেনা, কেনোনা ফোনটি লক করা থাকে।ফোনটি ব্যবহার করার জন্য অবশ্যইআনলক করা প্রয়োজনীয়।সিম সম্পর্কে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্যযা আপনার জানা দরকার— প্রিপেইডসিম কার্ড । এই সিমের জন্য আপনাকেকোন প্লান কিনতে বা সাবস্ক্রাইবকরতে হয় না, এটি অনেক সস্তা এবংসাশ্রয়ী হয়ে থাকে। আমাদের দেশেরবেশিরভাগ মোবাইলসাবস্ক্রাইবারগন প্রিপেইড সিমব্যবহার করে। তবে অনেক দেশ রয়েছেযেখানে মানুষ টিউন পেইড সিম ব্যবহারকরে।শেষ কথাএকটি ফোন থেকে আরেকটি ফোনে মুভকরার সময় সিম কার্ড অনেক উপকারীভূমিকা পালন করে। হয়তো এই সুবিধারকারনেই আমরা এখনো সিম প্রযুক্তিরসাথে চিপকে লেগে আছি। তবে সিমহারিয়ে ফেলা কিন্তু সত্যিই বিরক্তিকরব্যাপার, কেনোনা এতে অনেক গুরুত্বপূর্ণতথ্য থাকে। আশা করছি আজকেরটিউনটি অনেক জ্ঞান সমৃদ্ধ ছিল। আপনিসিম এবং মোবাইল নেটওয়ার্ক সম্পর্কেঅনেক কিছু জানলেন। আপনার যেকোনোপ্রশ্নে নিচে টিউমেন্ট করতে পারেন,

80 total views, 0 views today

mm
About bipul 5678 Articles
Love is Life

Be the first to comment

Leave a Reply