***********স্বপ্নের ক্যানভাসে সেই মেয়েটি: ************

শুভ আজ তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠে
ফ্রেশ হয়ে কলেজের দিকে ছুটলো কারণ
আজ তার
কলেজে নবীন বরন অনুষ্ঠান।
শুভ যেতে যেতে লিমনকে ফোন দিলো
(লিমন শুভর বন্ধু)
শুভ-রেডি হইছিস তুই?
লিমন-এইতো হয়ে গেছে রে।
শুভ-ঠিক আছে চৌরাস্তার মৌড়ে চলে
আয়।
!
শুভ ও লিমন একসাথে কলেজে গেল এবং
সবার মাঝখানের সিটে বসলো।
কলেজের সব শিক্ষক ও বড় ভাইয়েরা
বক্তব্য এবং অনেক উপদেশ দিল।
এবার শুরু হলো সঙ্গিতা অনুষ্ঠান।
বড়রা যার যার মতো সঙ্গীত পরিবেশন
করল।
বলা হলো নবীন কেউ সঙ্গীত পরিবেশন
করতে চাইলে আসতে পারো।
লিমন বললো শুভকে যা একটা গান গেয়ে
আয় দোস্ত।
শুভ আবার টুকটাক গাইতে পারে সেটা
লিমন জানে।
শুভ মঞ্চে উঠে গান গাইবে এমন সময় তার
চোখ পড়লো সামনে সিটে বসা একটা
মেয়ের দিকে।
শুভ মুহুত্বে হারিয়ে গেল অন্য জগৎতে
বলছে
বিধাতার কি অপরুপ সৃষ্টি।
কালো কেশ,মায়াভরা চোখে
কাজল,টোল পড়া হাসি,নীল ড্রেস
মোটকথা শুভর মতে তাহার বর্ননা মুখে
বলে শেষ করা যাবে না।
.
শুভর গান শেষ চারদিকে করতালির
শব্দে মুখরিতো।
শুভ ভাবতেই পারেনি তার গান সবার
এতো ভাল লাগবে।
অনুষ্ঠান শেষ লিমন বললো শুভ বাসায়
যা আমি একটু পরে যাবো।
শুভ বাসার দিকে যাচ্ছে কলেজের গেট
থেকে একটু সামনে যেতেই পিছন থেকে
বললো কেউ বললো-এই দাঁড়ানতো।
শুভ পিছন ফিরে তাকিয়ে দেখলো সেই
মেয়েটি।
শুভ-জ্বী বলুন।
মেয়েটি বললো আপনি আমার দিকে ঐ
সময় অমন করে তাকিয়ে ছিলেন কেন?
মেয়ে মানুষ কখনো দেখেনি
কোনোদিন।
শুভ-দেখেছি তবে আপনার মতো
দেখেনি (আস্তে করে)
মেয়েটি ধমকের সুরে বললো কি
বললেন?
শুভ-না কিছুনা।আপনার নাম জানতে
পারি?
–নিপা.আপনার নাম
শুভ- আমার নাম শুভ।
নিপা-আপনি গানটা অনেটা সুন্দর
গেয়েছেন
শুভ-ধন্যবাদ।
নিপা-আমার বন্ধু হবেন আপনি?
শুভ-না
নিপা-রাগী সুরে কেন?
শুভ-বন্ধুকে কি কেউ আপনি বলে?
যদি তুমি বলো তাহলে বন্ধুত্ব ডান।
নিপা-ও তাই বলো ঠিক আছে ডান।
শুভ-হুম
নিপা-এখন যেতে হবে কাল কলেজে
দেখা হচ্ছে
বায়।
শুভ-বায় ভালো থাকো।
!
পরদিন কলেজে তাদের অনেক কথা হলো
আর এভাবেই তাদের কাটলো 1টি বছর।
শুভর ভাবনায়-চিন্তা চেতনায় এখন শুধু
নিপা।নিপা ছাড়া তার এক মূহুত্ব যেন
কাটতে চায় না।
শুভর স্বপ্নের ক্যানভাসে এখন শুধুই
নিপা।
শুভ যে নিপাকে নিয়ে এতো ভাবে
নিপা জানে না বা শুভ জানাতে চায়
না যদি
তাদের ফেন্ডশিপ নষ্ট হয়ে যায়।
!
ফাইনাল পরীক্ষা কাছাকাছি কলেজে
তাদের বিদায় অনুষ্ঠান আজ।
শুভর ভীষণ মন খারাপ কোনো কথা
বলছে না।
নিপা বুঝতে পারে শুভর মন খারাপ।
নিপা-চলো কোথাও ঘুরে আসি।
শুভ-কোথায় ঘুরতে যাবে?
নিপা-কালিগঙ্গা ব্রীজের ওপর।
!
হাঁটতে হাঁটতে দুজন ব্রীজের ওপর
দাঁড়ালো
শুভ কথা বলছে না
নিপা-কথা বলছো না কেন?
শুভ-এমনি।আচ্ছা আমাদের আর দেখা হবে
না তুমি পরীক্ষা দিয়ে চলে যাবে
একবারে না?
নিপা-হ্যা।কিন্ত কেন?
শুভ-একটা কথা বলি রাগ করবে নাতো?
নিপা-করবো না বলো।
শুভ-শুভ বলা শুরু করলো..যেদিন তোমাকে
দেখছি সেদিন থেকে একটু একটু করে
ভালোবাসতে বাসতে এতো বেসেছি
যে
এখন তুমি ছাড়া আমার পৃথিটা শূন্য
বালুচড়।তুমিই আমার স্বপ্নের
ক্যানভাসের একমাএ মেয়ে যাকে
কিনা আমার অন্তরের অন্তস্থল থেকে
ভালোবেছি।
এখন পারবো না তোমাকে হারাতে
পারবো না আমি ছাড়তে তোকে।
কথা গুলো বলতে বলতে চোখের কোণে
অশ্রু
এসে গেল শুভর।
নিপা-আগে বললিসনি কেন?
শুভ-ভয়ে যদি ছেড়ে চলে যাস।
নিপা-হুম।
শুভ-কি হুম.তুই আমাকে একটু ভালোবাসতে
পারবি বিনিময়ে আমার প্রাণটাও
দিতে রাজি যদি তুই চাস।
নিপা-প্রাণ দিতে হবে না
ভালোবাসা দিলেই হবে।আমিও এখন
থেকে তোকে ভালোবাসবো
শুভ-সত্যি বলছিস তুই,কথা দে ছেড়ে
যাবি না কখনো।
নিপা-কথা দিলাম।
!
ভালোই চলছিলো তাদের সম্পর্ক।
কিন্তু বছর যেতে না যেতেই নিপা
কেমন যেন পরিবর্তন হতে থাকলো।
আগের মতো ঠিক কথা বলে,দেখা করতে
বললে দেখা করে না,ফোন মাঝে বিজি
থাকে যদিও ফোন ধরে কাজের
অজুহাতে শুভকে এড়িয়ে যায়।
একদিন শুভ নিপাকে প্রশ্ন করে
বলে–
শুভ-তুমি আমাকে এভাবে কষ্ঠ দাও কেন
বলতো?
নিপা-আমাকে তুমি ভুলে যাও।
শুভ-কি বলছো এসব।
নিপা-ঠিক বলছি,তোমার সাথে আমার
এখন আর চলে না,আমি অন্য একজনকে
ভালোবাসি।
শুভ-তুমি আমায় কথা দিয়ে ছিলে আমায়
ছেড়ে যাবে না।
নিপা-সেটা আবেগে বলেছিলাম।
আমাকে ভুলে যাও,আমার সাথে আর
যোগাযোগের চেষ্টা করো না।ভালো
থেকো বায়।
!
কথা গুলো শুনার পর শুভর মাথায় যেন
আকাশ ভেঙ্গে পড়লো।শুভ বিশ্বাস
করতে পারছে না নিপা এরখম করতে
পারবে তার ভালোবাসাকে
খেলবে,তার স্বপ্নের ক্যানভাস ভেঙ্গে
চুরমার করে ফেলে দিবে।
!
হঠাৎ তার বন্ধুর ডাকে শুভ অতীত থেকে
ফিরে আসলো-
লিমন-কি ভাবছিস তুই?ঐ মেয়েটার
কথা,ভুলে যা ফহিন্নি মেয়েটার
কথা,মেয়েটা যদি ভুলে যেতে পারে
তাহলে তুই কেন পারবি না।
লিমন শুভকে একগাদা কথা শুনিয়ে
দিলো।
—শুভ আস্তে আস্তে বলছে আমি তাকে
সত্যিকারের ভালোবেসেছিলাম ভুলে
যাই কি করে বল।যতোদিন এই দেহে
প্রাণ আছে ততো দিন তাকে ভুলে
যাওয়া আমার পক্ষে সম্ভব না,আমার
স্বপ্নের ক্যানভাস থেকে তাকে
মুছে ফেলা অসম্ভব।

About bipul 5693 Articles
Love is Life

Be the first to comment

Leave a Reply