[Personal Tips] যখন একই সঙ্গে ভালোবাসেন দুজনকে…

ভাবছেন একই সঙ্গে দুজনকে কী করে ভালোবাসা সম্ভব? মানুষের মন বড় বিচিত্র জিনিস। মনে করে দেখুন তো, এমন ঘটনা কি আপনি কখনোই শোনেননি যে, একটি ছেলে বা মেয়ে একাধিক জনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ধরে রেখেছে? নিশ্চয়ই শুনেছেন। বিশেষ করে এখনকার সময়ে, যখন প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠতে এবং ভেঙে যেতে মোটেও সময় লাগে না, একাধিক প্রেমে জড়িয়ে যাওয়া অহরহ ঘটে থাকে। আদতে কি এটা ঠিক? এটা উচিত কি অনুচিত, সে তর্কে আমরা না যাই, তবে এটা অবশ্যই জানা যেতে পারে, কেমন পরিস্থিতিতে মানুষ এ ধরনের দ্বিচারণেজড়িয়ে পড়ে এবং তখন আসলে কী করা উচিত।কেন এমন হয়মানুষ মরে গেল পচে যায় আর বেঁচে থাকলেবদলায় – এ প্রবাদসম বাক্যটির সঙ্গে নিশ্চয়ই আপনি অপরিচিত নন! একজনের মানুষের প্রতি আরেকজনের ভালো লাগাও প্রতিনিয়তই বদলে যায়। ..কখনো এই ভালো লাগা বাড়তে থাকে আবার কখনোবা কমে যায়। কখনো আবার ভালো লেগে যায় অন্য কাউকে! বেশির ভাগ সময়েই এই মন পরিবর্তনের কারণেই মানুষ হয়ে ওঠে দ্বিচারী, গড়ে তোলে একাধিক জনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক। আসুন জেনে নিই এর পেছনের কিছু কারণ।.স্বপ্নসঙ্গীর খোঁজপ্রতিটি মানুষই তার মনের মানুষ নিয়ে কিছু স্বপ্ন নিজের অন্তরে পুষে রাখে। কিন্তু একজনের মাঝেই সব গুণাগুণ পাওয়া সম্ভব নয়। হয়তো কারো সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রেম করার পর সে যদি অন্য কারো মধ্য না-পাওয়া গুণগুলোর খোঁজ পায় তাহলে তার প্রতিও আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। তখন দুজন মানুষকেই ধরে রাখার প্রবণতা ব্যক্তিটির মধ্যে দেখা দেয়।.একাধিক প্রেমে জড়িয়ে পড়ার এটি একটি অন্যতম কারণ।.বেছে নিতে না পারাএটা প্রেমের শুরুর দিকের সমস্যা। যখন একজন মানুষের একাধিক সুযোগ থাকে, তখন এটা প্রকট আকার ধারণ করে। যেমন ধরুন, একজন ছেলে বা মেয়েকে দুজন মানুষ পছন্দ করে। তারা দুজনই সমান যোগ্যতা রাখে এবং সমান আকর্ষণীয়। বেশির ভাগ সময়েই দেখা যায় যে ওই ছেলেটি বা মেয়েটি দুজনের মধ্যে কাউকে বেছে নিতে না পেরে দুজনের সঙ্গেই .সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে।.ফিরিয়ে দিতে না পারাএকজনের সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক থাকার পরও অনেকের আরেকজনকে ভালো লেগে যায়। কিন্তু প্রথম জনকে ফিরিয়ে দিতে ও তারা দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগে। এই দোলাচল থেকেও অনেকে একাধিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে।.কী করবেন?আপনি কি একই সঙ্গে দুজন মানুষের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন? সমাজ এটাকে খারাপ নজরে দেখলেও আপনি হয়তো তা বুঝে উঠতে পারছেন না। আপনার কাছে ব্যাপারটি নেতিবাচক না মনে হলেও এ ধরনের দ্বিচারণের কিন্তু ভবিষ্যত্ অন্ধকার, এটা আপনাকে মানতেই হবে! তাই সময় থাকতেই নিজেকে সামলে নেয়া উচিত।.*.-নিজেকে প্রশ্ন করুন, নিজের মনকে বোঝার চেষ্টা করুন। নিজের সাথে কথা বলে ঠিক করুন আপনি আসলে কী চান এবং কাকে চান! নিজের মনের কথা শুনুন।.*.-নিজের ভবিষ্যত্ নিয়ে সবাই চিন্তা করে, এটা খারাপ কিছু নয়। আপনি খুব ভালো করে ভেবে দেখুন, কার সঙ্গে আপনি ভবিষ্যতেও ভালোভাবে থাকতে পারবেন। এবং একমাত্র তার সঙ্গেই আপনার সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যান।.*.-সিদ্ধান্ত নিতে না পারলে প্রয়োজনে কাউন্সিলিং করতে পারেন। অথবা এমন কারো পরামর্শ নিন যিনি আপনাকে খুব ভালো করে চেনেন এবং বোঝেন

38 total views, 0 views today

mm
About bipul 5678 Articles
Love is Life

Be the first to comment

Leave a Reply